ঢাকা, মঙ্গলবার, ২০ আগস্ট ২০১৯, ৫ ভাদ্র ১৪২৬


'১৫ আগস্টের পর কাশ্মীরে কারফিউ শিথিল হবে'

২০১৯ আগস্ট ১৪ ১১:১৩:১৮


আন্তর্জাতিক ডেস্ক : কাশ্মীর উপত্যকায় জনসাধারণের চলাফেরায় আরোপিত বিধিনিষেধ (কারফিউ) আগামীকাল ১৫ আগস্টের পর শিথিল করা হবে। জম্মু-কাশ্মীরের গভর্নর সত্যপাল মালিক টাইমস অব ইন্ডিয়ার সঙ্গে এক সাক্ষাৎকারে এসব কথা বলেন তিনি।

মালিক জানান, তরুণ সমাজকে বিপথে পরিচালিত করে সংগঠিত করতে ফোন ও ইন্টারনেটকে অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছে। তাই পরিস্থিতি অনুকূলে না আসা পর্যন্ত উপত্যকার সঙ্গে বাইরের যোগাযোগের ক্ষেত্রে সাবধানতা অবলম্বন করতে চান তিনি।

রাজ্যপাল আরো বলেন, আমরা পরিস্থিতি ঠিক না হওয়া পর্যন্ত ওসব জিনিস (টেলিযোগাযোগ ও ইন্টারনেট) শত্রুকে ব্যবহার করার সুযোগ করে দিতে চাই না। এক সপ্তাহ থেকে ১০ দিনের মধ্যে সবকিছু ঠিক হয়ে যাবে। তারপর ধীরেসুস্থে যোগাযোগ ব্যবস্থা উন্মুক্ত করে দেওয়া হবে।’

অন্যদিকে সাবেক কংগ্রেস সভাপতি ও সংসদ সদস্য রাহুল গান্ধীর বিরুদ্ধে ভুয়া খবর ছড়ানোর অভিযোগ এনেছেন জম্মু-কাশ্মীরের রাজ্যপাল সত্যপাল মালিক।

ভারতীয় গণমাধ্যম নিউজ১৮-এর প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এ বিষয়ে যাবতীয় বাকযুদ্ধের সূত্রপাত গত সোমবার। ওই দিন রাহুল গান্ধী মন্তব্য করেন, জম্মু-কাশ্মীরের পরিস্থিতি ঠিক নেই, একাধিক জায়গায় সংঘাতের খবর পাওয়া যাচ্ছে।

এরপরই রাহুলকে উদ্দেশ করে সত্যপাল মালিক বলেন, আমি রাহুল গান্ধীকে কাশ্মীরে আসার আমন্ত্রণ জানাচ্ছি। আমি বিমান পাঠাব। তিনি বিমানে ঘুরে পরিস্থিতি দেখুন, তারপর কথা বলুন। আপনি দায়িত্বজ্ঞানসম্পন্ন মানুষ, আপনার এ রকম মন্তব্য করা উচিত নয়।

এর পরই সত্যপাল মালিকের উদ্দেশে রাহুল গান্ধী টুইটে লেখেন, বিরোধীদলের নেতাদের নিয়ে একসঙ্গে কাশ্মীর যেতে চাই। আপনার উষ্ণ নিমন্ত্রণ গ্রহণ করে জম্মু-কাশ্মীর ও লাদাখ সফর করতে চাই। আমাদের বিমান লাগবে না। শুধু স্বাধীনভাবে সফর এবং কাশ্মীরের মানুষ, রাজনৈতিক নেতা ও আমাদের সেনাদের সঙ্গে কথা বলতে দিতে হবে।

ওই টুইটের জবাবে মালিক দাবি করেন, জম্মু-কাশ্মীরের বিষয়টি ইচ্ছাকৃতভাবে রাজনীতিকীকরণ করছেন রাহুল গান্ধী। এ ধরনের আচরণ করে পরিস্থিতি অশান্ত করে তুলতে চাইছেন রাহুল গান্ধী, এমন অভিযোগও করেন রাজ্যপাল। পাশাপাশি মালিকের অভিযোগ, ভুয়া খবর বিশ্বাস করে এ ধরনের মন্তব্য করছেন রাহুল গান্ধী।

বিজনেস আওয়ার/১৪ আগস্ট, ২০১৯/এ

উপরে