ঢাকা, সোমবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৮ আশ্বিন ১৪২৬


মজুত থাকার পরও চামড়া রফতানির বিরোধিতা ট্যানারি মালিকদের

২০১৯ আগস্ট ১৬ ১৫:৩২:৪১

বিজনেস আওয়ার প্রতিবেদকঃ আগের বছরের অর্ধেক চামড়া মজুত থাকার পরও কোন যৌক্তিক কারণ ছাড়াই রফতানির বিরোধিতা করছে ট্যানারি মালিকরা। মালিকদের দাবি, কারখানা কমপ্লায়ান্ট না হওয়ার কারণেই প্রতি বছরই কমছে রফতানি।

অর্থনীতি বিশ্লেষকরা বলছেন, কাঁচা চামড়া ও ওয়েট ব্লু পর্যায়ের চামড়া রফতানির প্রক্রিয়ার পাশাপাশি নজর দিতে হবে সি-ইটিপি চালু করে পরিবেশসম্মত প্রক্রিয়াজাত চামড়া রফতানির দিকে।

সরকারি হিসেবে চলতি বছর দেশে পশু কোরবানি হয় ১ কোটি ২০ লাখের মতো। এর মধ্যে গরু কোরবানি হয়েছে ৪৫ থেকে ৫০ লাখ। আর বাকিটা ছাগল, মহিষ ও ভেড়ার। কম দামের কারণে অবিক্রিত থাকায় এসব চামড়ার একটি বড় অংশ নষ্ট হয়ে গেছে। অথচ ট্যানারস এসোসিয়েশন বলছে এ বছর তাদের চামড়ার লক্ষ্যমাত্রা ৮০ থেকে ৮৫ লাখ পিস। বাকি ৩০ থেকে ৭৫ পিস নিয়ে নিশ্চুপ তারা।

ইপিবি'র তথ্য বিশ্লেষণে দেখা যায়, ২০১৬-১৭ অর্থবছরের তুলনায় ২০১৭-১৮ অর্থবছরে ১২ শতাংশ চামড়া ও চামড়াজাত পণ্য রপ্তানি কমেছে। ২০১৮ সালের শেষ ৬ মাসেও রপ্তানি আয় কমেছে প্রায় ১৫ শতাংশ।

বিজনেস আওয়ার/১৬ আগস্ট,২০১৯/আরআই

উপরে