ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৪ আশ্বিন ১৪২৬


বরিসের ছোট ভাইয়ের পদত্যাগ

২০১৯ সেপ্টেম্বর ০৬ ১০:৪৯:৪০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ইইউ থেকে ব্রিটেনের বেরিয়ে আসার বিতর্কের মধ্যেই ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের ছোট ভাই জো জনসন কনজারভেটিভ পার্টির এমপি ও মন্ত্রী উভয় পদ থেকেই সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দিয়েছেন। এটি বরিস জনসনের জন্য বড় ধাক্কা বলে অভিহিত করেছেন বিশ্লেষকরা।

পারিবারিক আনুগত্য ও জাতীয় স্বার্থের সংঘাতের মধ্যে পড়ে গেছেন বলে জানিয়েছেন তিনি। নিজের ভূমিকার ক্ষেত্রে এক অপরিসীম উত্তেজনার মধ্যে আছেন বলে জানিয়েছেন দক্ষিণ-পূর্ব লন্ডনের ওরফিংটনের এই টরি এমপি ও বাণিজ্যমন্ত্রী।

এ ব্যাপারে বিবিসির রাজনীতিবিষয়ক সম্পাদক লোরা কুয়েন্সবার্গ বলেন, এটি ছিল এক অবিশ্বাস্য মুহূর্ত। সহকর্মীদের শুদ্ধি নিয়ে তিনি হতাশ ছিলেন। ব্রেক্সিট ইস্যুতে দুই ভাই ভিন্ন জায়গায় চলে গেছেন।

জো জনসন ২০১৬ সালের গণভোটে ব্রিটেনের ইইউয়ে থাকার পক্ষে ভোট দিয়েছিলেন। কিন্তু তার ভাই বরিস জনসন তখন ইইউ থেকে যুক্তরাজ্যের বেরিয়ে যাওয়ার পক্ষে প্রচার চালিয়েছিলেন।

গত বছর তখনকার ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী তেরেসা মের সময়ও ব্রেক্সিট চুক্তির বিরোধিতা করে পদত্যাগ করেছিলেন জো জনসন। কিন্তু এ বছর বরিস জনসন নতুন প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর আবার সরকারে ফিরে আসেন জো জনসন।

বর্তমানে ব্রিটিশ পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ হাউস অব কমনসে দুটি গুরুত্বপূর্ণ প্রস্তাবের ওপর ভোটে বরিস জনসনের পরাজয়ের আগের ঘোষণা অনুয়ায়ী ৩১ অক্টোবরে ব্রেক্সিটের সম্ভাবনা অনিশ্চিত হয়ে পড়ার মুহূর্তেই জোয়ের পদত্যাগের এ ঘোষণা এলো।

তার এ পদত্যাগের ঠিক আগেই বরিস জনসন তার দল থেকে ২১ জন আইনপ্রণেতাকে বহিষ্কার করেন। তারা চুক্তিহীন ব্রেক্সিটের বিপক্ষে ভোট দিয়ে নিজ দলের বিপক্ষেই ভোট দিয়েছিলেন বলে তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ।

বিজনেস আওয়ার/০৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৯/এ

উপরে