sristymultimedia.com

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৯, ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬


সপ্তাহজুড়ে ১৮ কোম্পানির লভ্যাংশ ঘোষণা

১১:০৫এএম, ০৯ নভেম্বর ২০১৯

বিজনেস আওয়ার প্রতিবেদক : বিদায়ী সপ্তাহে শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত ১৮ কোম্পানির পরিচালনা পর্ষদ ৩০ জুন সমাপ্ত অর্থবছরের আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে শেয়ারহোল্ডারদের জন্য লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

কোম্পানিগুলোর হলো: এস আলম কোল্ড রোল্ড স্টিল, হাক্কানি পাল্প, মতিন স্পিনিং, পদ্মা অয়েল, ইস্টার্ন লুব্রিকেন্টস, এটলাস বাংলাদেশ, সেন্ট্রাল ফার্মা, জিবিবি পাওয়ার, ইস্টার্ন কেবল, এমএল ডাইং, ফার্মা এইডস, ওরিয়ন ফার্মা, ন্যাশনাল টিউবস, শমরিতা হসপিটাল, পাওয়ার গ্রীড, মেঘনা পেট্রোলিয়াম, অলিম্পিক ইন্ডাস্ট্রিজ এবং জাহিন স্পিনিং।

কোম্পানিগুলোর মধ্যে এস আলম কোল্ড রোল্ড স্টিল ১০ শতাংশ নগদ, হাক্কানি পাল্প ২ শতাংশ নগদ, মতিন স্পিনিং ১৫ শতাংশ নগদ, পদ্মা অয়েল ১৩৯ শতাংশ নগদ, ইস্টার্ন লুব্রিকেন্টস ১০০ শতাংশ নগদ, এটলাস বাংলাদেশ ৫ শতাংশ নগদ, সেন্ট্রাল ফার্মার ১ শতাংশ নগদ, জিবিবি পাওয়ার ১০ শতাংশ নগদ, ইস্টার্ন কেবল ৫ শতাংশ নগদ, এমএল ডাইং ৫ শতাংশ নগদ ও ১৫ শতাংশ বোনাস, ফার্মা এইডস ৫০ শতাংশ নগদ, ওরিয়ন ফার্মা ১৫ শতাংশ নগদ, ন্যাশনাল টিউবস ১০ শতাংশ বোনাস, শমরিতা হসপিটাল ১০ শতাংশ নগদ ও ৫ শতাংশ বোনাস, পাওয়ার গ্রীড ২০ শতাংশ নগদ, মেঘনা পেট্রোলিয়াম ১৫০ শতাংশ নগদ, অলিম্পিক ইন্ডাস্ট্রিজ ৫০ শতাংশ নগদ এবং জাহিন স্পিনিং ৫ শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে।

সমাপ্ত অর্থবছরের আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা শেষে এস আলমের ইপিএস হয়েছে ১.০৫ টাকা ও শেয়ারপ্রতি সম্পদ (এনএভি) দাঁড়িয়েছে ১৯.৪৬ টাকায়; হাক্কানি পাল্পের শেয়ারপ্রতি লোকসান হয়েছে ১.১১ টাকা ও শেয়ারপ্রতি সম্পদ (এনএভি) দাঁড়িয়েছে ২৬.০৭ টাকায়; মতিন স্পিনিংয়ের ইপিএস হয়েছে ০.৯৭ টাকা ও শেয়ারপ্রতি সম্পদ (এনএভি) দাঁড়িয়েছে ৪২.৯০ টাকায়; পদ্মা অয়েলের ইপিএস হয়েছে ২৯.০৭ টাকা ও শেয়ারপ্রতি সম্পদ (এনএভি) দাঁড়িয়েছে ১৪২.৮৫ টাকায়; ইস্টার্ন লুব্রিকেন্টসের ইপিএস হয়েছে ২৩.৪৫ টাকা ও শেয়ারপ্রতি সম্পদ (এনএভি) দাঁড়িয়েছে ১৮২.৭৬ টাকায়; এটলাস বাংলাদেশের শেয়ারপ্রতি লোকসান হয়েছে ০.৯৯ টাকা ও শেয়ারপ্রতি সম্পদ (এনএভি) দাঁড়িয়েছে ১৩৩ টাকায়; সেন্ট্রাল ফার্মার ইপিএস হয়েছে ০.৪৮ টাকা ও শেয়ারপ্রতি সম্পদ (এনএভি) দাঁড়িয়েছে ১৪.৮৭ টাকায়; জিবিবি পাওয়ারের ইপিএস হয়েছে ০.৭৬ টাকা ও শেয়ারপ্রতি সম্পদ (এনএভি) দাঁড়িয়েছে ২০.৩০ টাকায়; ইস্টার্ন কেবলের শেয়ারপ্রতি লোকসান হয়েছে ৪.৭২ টাকা ও শেয়ারপ্রতি সম্পদ (এনএভি) দাঁড়িয়েছে ২২.০৭ টাকায়; এমএল ডাইংয়ের ইপিএস হয়েছে ১.০৭ টাকা ও শেয়ারপ্রতি সম্পদ (এনএভি) দাঁড়িয়েছে ১৮.৩০ টাকায়; ফার্মা এইডসের ইপিএস হয়েছে ১৫.৪৮ টাকা ও শেয়ারপ্রতি সম্পদ (এনএভি) দাঁড়িয়েছে ৭১.০৮ টাকায়; ওরিয়ন ফার্মার ইপিএস হয়েছে ৩.৭৭ টাকা ও শেয়ারপ্রতি সম্পদ (এনএভি) দাঁড়িয়েছে ৭৫.১৯ টাকায়; ন্যাশনাল টিউবসের শেয়ারপ্রতি লোকসান হয়েছে ০.১৬ টাকা ও শেয়ারপ্রতি সম্পদ (এনএভি) দাঁড়িয়েছে ১৭৫.৩০ টাকায়; শমরিতা হসপিটালের ইপিএস হয়েছে ১.৭৯ টাকা ও শেয়ারপ্রতি সম্পদ (এনএভি) দাঁড়িয়েছে ৫২.৫৫ টাকায়; পাওয়ার গ্রীডের ইপিএস হয়েছে ৮.৩৩ টাকা ও শেয়ারপ্রতি সম্পদ (এনএভি) দাঁড়িয়েছে ১৪৩.৭৬ টাকায়; মেঘনা পেট্রোলিয়ামের ইপিএস হয়েছে ৩৫.১১ টাকা ও শেয়ারপ্রতি সম্পদ (এনএভি) দাঁড়িয়েছে ১৩৪.৩০ টাকায়; অলিম্পিক ইন্ডাস্ট্রিজের ইপিএস হয়েছে ৯.৩৬ টাকা ও শেয়ারপ্রতি সম্পদ (এনএভি) দাঁড়িয়েছে ৩৬.০৯ টাকায় এবং জাহিন স্পিনিংয়ের ইপিএস হয়েছে ০.৬৩ টাকা ও শেয়ারপ্রতি সম্পদ (এনএভি) দাঁড়িয়েছে ১২.৮১ টাকায়।

ঘোষিত লভ্যাংশ শেয়ারহোল্ডারদের সম্মতিক্রমে অনুমোদনের জন্য বার্ষিক সাধারণ সভার (এজিএম) আহবান করেছে কোম্পানিগুলো। কোম্পানিগুলোর মধ্যে এস আলমের ৬ জানুয়ারি, হাক্কানি পাল্পের ২৬ ডিসেম্বর, মতিন স্পিনিংয়ের ১২ ডিসেম্বর, পদ্মা অয়েলের ১৮ জানুয়ারি, ইস্টার্ন লুব্রিকেন্টসের ৮ ফেব্রুয়ারি, এটলাস বাংলাদেশের ২১ ডিসেম্বর, সেন্ট্রাল ফার্মার ৩০ ডিসেম্বর, জিবিবি পাওয়ারের ১৮ ডিসেম্বর, ইস্টার্ন কেবলের ৮ ফেব্রুয়ারি, এমএল ডাইংয়ের ১৯ ডিসেম্বর, ফার্মা এইডসের ২৬ ডিসেম্বর, ওরিয়ন ফার্মার ১৫ ডিসেম্বর, ন্যাশনাল টিউবসের ২৬ ডিসেম্বর, শমরিতা হসপিটালের ২৯ ডিসেম্বর, পাওয়ার গ্রীডের ২৫ জানুয়ারি, মেঘনা পেট্রোয়িামের ৪ জানুয়ারি, অলিম্পিক ইন্ডাস্ট্রিজের ২৬ ডিসেম্বর এবং জাহিন স্পিনিংয়ের এজিএম ২৮ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হবে।

ঘোষিত লভ্যাংশ বিতরণের জন্য রেকর্ড ডেট নির্ধারণ করেছে কোম্পানিগুলো। এসব কোম্পানির মধ্যে এস আলমের ২৭ নভেম্বর, হাক্কানি পাল্পের ২৪ নভেম্বর, মতিন স্পিনিংয়ের ২৪ নভেম্বর, পদ্মা অয়েলের ২৬ নভেম্বর, ইস্টার্ন লুব্রিকেন্টসের ১৭ ডিসেম্বর, এটলাস বাংলাদেশের ২৪ নভেম্বর, সেন্ট্রাল ফার্মার ২৫ নভেম্বর, জিবিবি পাওয়ারের ৩ ডিসেম্বর, ইস্টার্ন কেবলের ১২ ডিসেম্বর, এমএল ডাইংয়ের ২৭ নভেম্বর, ফার্মা এইডসের ২ ডিসেম্বর, ওরিয়ন ফার্মার ২৮ নভেম্বর, ন্যাশনাল টিউবসের ২৭ নভেম্বর, শমরিতা হসপিটালের ২ ডিসেম্বর, পাওয়ার গ্রীডের ২২ ডিসেম্বর, মেঘনা পেট্রোলিয়ামের ১ ডিসেম্বর, অলিম্পিক ইন্ডাস্ট্রিজের ৮ নভেম্বর এবং জাহিন স্পিনিংয়ের রেকর্ড ডেট ২৪ নভেম্বর নির্ধারণ করা হয়েছে।

বিজনেস আওয়ার/০৯ নভেম্বর, ২০১৯/এস

উপরে