businesshour24.com

ঢাকা, শনিবার, ১৮ জানুয়ারি ২০২০, ৫ মাঘ ১৪২৬


মিয়ানমারের বর্বরতার বর্ণনা দিল গাম্বিয়া, নির্বাক সু চি

০৭:০৩পিএম, ১০ ডিসেম্বর ২০১৯

বিজনেস আওয়ার প্রতিবেদকঃ রোহিঙ্গা গণহত্যার অভিযোগে আন্তর্জাতিক আদালতে মিয়ানমারের বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলার শুনানির প্রথমদিনে গাম্বিয়ার শুনানি মত শেষ হয়েছে। মঙ্গলবার বাংলাদেশ সময় বিকেল ৩টার দিকে এ মামলার শুনানির শুরুতে প্রধান বিচারপতির উদ্দেশে গাম্বিয়ার আইন ও বিচারমন্ত্রী বলেন, গাম্বিয়া যা বলছে তা হলো আপনি মিয়ানমারকে এই নির্বোধ হত্যাকাণ্ড বন্ধ করতে বলুন।

আজ নেদারল্যান্ডসের হেগে অবস্থিত আন্তর্জাতিক আদালতে বাংলাদেশ সময় বিকেল ৩টায় এই শুনানি শুরু হয়। চলবে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত।

গাম্বিয়ার আইন ও বিচারমন্ত্রী আবুবকর মারি তামাবাদু বলেন, বর্বর এবং নৃশংস এসব কাজ; যা আমাদের সবার বিবেককে আঘাত করেছে। এটি এখনও অব্যাহত রয়েছে। নিজ দেশের মানুষকে গণহত্যা বন্ধ করতে হবে।

আদালত কক্ষে গাম্বিয়ার আইনজীবী দলের সদস্যরা যখন মিয়ানমারের নৃশংসতার চিত্র তুলে ধরেন তখন নির্বিকার দেখা যায় অং সান সু চিকে। এ সময় আদালতের বাইরে কয়েক ডজন রোহিঙ্গাকে ন্যায়বিচারের দাবিতে সমাবেশ করতে দেখা যায়।

একই সময়ে মিয়ানমারের বাণিজ্যিক রাজধানী খ্যাত ইয়াঙ্গুনে সু চির সমর্থনে হাজার হাজার মানুষ সমাবেশ করে। সমাবেশে আসা বার্মিজদের হাতে বিভিন্ন ধরনের প্ল্যাকার্ড দেখা যায়। অনেকেই ‘দেশের মর্যাদা রক্ষায়’, ‘জননী সু চির পাশে দাঁড়ান’ স্লোগান দেন।

মঙ্গলবার শুনানির প্রথম দিনে সাক্ষ্য-প্রমাণ দাখিল করছে গাম্বিয়া প্রজাতন্ত্র। আগামীকাল বুধবার একই সময়ে শুরু হওয়া শুনানিতে অংশ নিবে মিয়ানমার। এতে দেশের পক্ষে বক্তব্য রাখবেন নোবেলজয়ী অং সান সু চি।

শুনানির শেষ দিনে বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ সময় বিকেল ৩টায় দেড় ঘণ্টার আলোচনায় অংশ নেয় গাম্বিয়া এবং বিরতির পর রাত সাড়ে ৯টায় শুরু হওয়া দেড় ঘণ্টার আলোচনায় অংশ নিবে মিয়ানমার। তবে এ মামলার রায় পেতে আট সপ্তাহ থেকে কয়েক বছর পর্যন্ত লাগতে পারে। তবে শুনানির দোষী সাব্যস্ত হলে মিয়ানমার এবং তাদের সেনা কর্মকর্তাদের কি ধরনের শাস্তি দেয়া হতে পারে এখনও তা স্পষ্ট নয়।

বিজনেস আওয়ার/১০ ডিসেম্বর, ২০১৯/আরআই

এই বিভাগের অন্যান্য খবর

উপরে