businesshour24.com

ঢাকা, শনিবার, ২৫ জানুয়ারি ২০২০, ১২ মাঘ ১৪২৬


ভারতের বিপক্ষে দাপুটে জয় দিয়ে সিরিজ শুরু উইন্ডিজের

১০:৪৪এএম, ১৬ ডিসেম্বর ২০১৯

স্পোর্টস ডেস্ক : ভারতের মাটিতে তাদের বিপক্ষে জয় তুলে নেয়া সাম্প্রতিক সময়ে ক্রিকেটে অত্যন্ত কঠিন কাজের একটি। সেই কঠিনতম কাজটিই খুব সহজে করে ফেললো ওয়েস্ট ইন্ডিজ। তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে ভারতের বিপক্ষে দাপুটে জয় সিরিজ শুরু করলো ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ১৩টি বল হাতে রেখে ম্যাচ জিতেছে ৮ উইকেটের বড় ব্যবধানে।

চেন্নাইয়ের এমএ চিদম্বরম স্টেডিয়ামে আগে ব্যাট করে ২৮৮ রানের বড় সংগ্রহ দাঁড় করিয়েছিল ভারত। এই মাঠে এত বেশি রান তাড়া করে জয়ের রেকর্ড ছিলো না একটিও। কিন্তু দ্বিতীয় ইনিংসে ভিন্ন চিন্তাই ছিলো ওপেনার শাই হোপ ও শিমরন হেটমায়ারের। দুজন মিলে ২১৮ রানের বিশাল জুটি গড়ে দলকে এনে দিয়েছেন ৮ উইকেটের জয়।

রোববার ভারতের ছুড়ে দেয়া ২৮৯ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা একদমই ভালো ছিলো না ক্যারিবীয়দের। ইনিংসের চতুর্থ ওভারে মাত্র ১১ রানের মাথায় সাজঘরে ফিরে যান ওপেনার সুনিল অ্যামব্রিস। ম্যাচের দ্বিতীয় ইনিংসটিতে এই একবারই উল্লাসের সুযোগ পায় ভারতীয় ফিল্ডাররা।

কেননা এরপর দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে স্বাগতিকদের ম্যাচ থেকে ছিটকে দেন শাই হোপ ও শিমরন হেটমায়ার। দুজন মিলে যোগ করেন ২১৮ রান, যেখানে হেটমায়ারের একার অবদানই ১৩৯। ভারতীয় বোলারদের উইকেটের চারপাশে উড়িয়ে-ঘুরিয়ে মেরে মাত্র ৮৫ বলে ক্যারিয়ারের পঞ্চম সেঞ্চুরি পূরণ করেন হেটমায়ার। থামেননি তখনও।

সেঞ্চুরির পর খেলেন আরও ২১ বল, নিজের ইনিংসটাকে নিয়ে যান ১৩৯ রানে। ইনিংসের ৩৯তম ওভারে হেটমায়ার আউট হন। তার আগেই খেলেন ১১ চার ও ৭ চারের মারে ১০৬ বলে ১৩৯ রানের ঝকঝকে ইনিংস। হেটমায়ারের বিদায়ের সময় হোপ অপরাজিত মাত্র ৭১ রানে। যা বুঝিয়ে দেয় হেটমায়ারের একক আধিপত্যের কথা।

এরপর হোপ নিজেও তুলে নেন ব্যক্তিগত সেঞ্চুরি। তবে হেটমায়ারের ঠিক বিপরীতভাবে, তার সেঞ্চুরি পূরণ হয় ১৪৯ বলে। শেষপর্যন্ত অপরাজিত থেকে ১৫১ বলে ১০২ রান করেন তিনি। চার নম্বরে নামা নিকলাস পুরান করেন ২৩ বলে ২৯ রান। এর আগে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে ৮ উইকেট হারিয়ে ২৮৭ রান করতে পারে ভারত। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৭১ রান করেন রিশাভ পান্ত।

বিজনেস আওয়ার/১৬ ডিসেম্বর, ২০১৯/এ

এই বিভাগের অন্যান্য খবর

উপরে