ঢাকা, বুধবার, ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৪ ফাল্গুন ১৪২৬


চালের দাম বাড়ায় সরকার উদ্বিগ্ন নয়

১০:৫৭এএম, ২৮ জানুয়ারি ২০২০

বিজনেস আওয়ার প্রতিবেদক : খুচরা বাজারে সব ধরনের চালের দাম বেড়েছে। সরকার অবশ্য বলছে, চালের দাম বাড়েনি। যদি বেড়ে থাকে তা বেড়েছে খুচরা বাজারে। এ বিষয়ে খোঁজখবর নেওয়া হচ্ছে। আর দাম বাড়লে তা বেড়েছে চিকন চালের। এতে সাধারণ মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে না। বিষয়টি নিয়ে সরকার উদ্বিগ্ন নয়।

রাজধানীর বিভিন্ন বাজার সুত্রে জানা গেছে, গত এক মাসে চালের দাম বেড়েছে কেজিতে ৭ টাকারও বেশি। আর চালের দাম বাড়ার কারণ হিসেবে ব্যবসায়ীরা বলছেন, মিল মালিকরা চালের দাম বাড়িয়েছে। এ কারণেই পাইকারি ব্যবসায়ীদের বেশি দামে কিনতে হচ্ছে। আর তারই প্রভাব পড়েছে রাজধানীসহ বিভিন্ন খুচরা বাজারে।

সুত্রে জানা গেছে, গেল বছরের ডিসেম্বরের শেষ সপ্তাহে চিকন চাল বিশেষ করে মিনিকেটের কেজি ছিল ৪৫ টাকা। বর্তমানে সেই চাল বিক্রি হচ্ছে ৫২-৫৩ টাকা কেজিতে। এছাড়া সাধারণ মানের মিনিকেট ও নাজির শাইল চালের কেজি ছিল ৪৫ টাকা। বর্তমানে তা বিক্রি হচ্ছে ৫৩-৫৪ টাকায়।

টেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশের (টিসিবি) তথ্য অনুযায়ী, গত এক মাসের ব্যবধানে চালের দাম বেড়েছে পাঁচ শতাংশ। ফলে বর্তমানে এক কেজি চিকন চালের দাম দাঁড়িয়েছে ৫০-৬০ টাকা। অপরদিকে মোটা চাল বিক্রি হচ্ছে ৩৩-৩৫ টাকা কেজিতে। গত এক মাসে সাধারণ মানের মিনিকেট ও নাজিরশাইল চালের মূল্য বেড়েছে ১১.৫৮ শতাংশ। আর চিকন চালের দাম বেড়েছে প্রায় ৭ শতাংশ।

রাজধানীর পাইকারি চাল ব্যবসায়ীরা বলছেন, আগামী ২-৩ মাসের মধ্যে চালের দাম কমবে। বর্তমানে মিনিকেট চালের ৫০ কেজির বস্তার দাম ২৩৫০ টাকা, যা একমাস আগেও বিক্রি হয়েছে ২১৫০ টাকায়। পাইকারি বাজারে মিনিকেট চাল ৪৮-৪৯ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। খুচরা বাজারে এই চাল বিক্রি হচ্ছে ৫৩-৫৪ টাকায়।

এ প্রসঙ্গে খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার বলেন, আসলে চালের দাম বাড়েনি। যদি বেড়েও থাকে তাহলে চিকন চালের দাম কেজিতে ২-১ টাকা বেড়েছে। এতে নিম্নআয়ের মানুষের তো কোনও সমস্যা হচ্ছে না। তারা তো চিকন চাল খায় না, মোটা চাল খায়। মোটা চালের দাম তো বাড়েনি। বাজারে মনিটরিং চলছে। খোঁজখবর নেওয়া হচ্ছে।

চালের মূল্য বৃদ্ধি প্রসঙ্গে জয়পুরহাটের চাল ব্যবসায়ী মোসলেম উদ্দিন বলেন, চিকন চালের দাম বেড়েছে। কারণ আমাদের বেশি দামে ধান কিনতে হচ্ছে। সরাসরি কৃষকের কাছ থেকে ধান কিনছি বলে এতে কৃষক লাভবান হচ্ছেন।

রাজধানীর বাবুবাজার-বাদামতলী চাল আড়তদার সমিতির সাধারণ সম্পাদক নিজামউদ্দিন বলেন, পাইকারি ও খুচরা বাজারে চিকন চালের দাম সামান্য বেড়েছে। মিলাররা কিছুটা বেশি দাম দিয়ে ধান কিনছে বলে বেড়েছে চিকন চালের দাম। তবে মোটা চালের দাম বাড়েনি। চিকন চাল ধনী মানুষরা খায়। এতে সমস্যার কিছু নাই।

এ প্রসঙ্গে বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বলেন, নিত্যপণ্যের বাজার মনিটরিংয়ে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা কাজ করছেন। কোথাও অনিয়ম ধরা পড়লে অবশ্যই ব্যবস্থা নেওয়া হবে। অযৌক্তিক মুনাফা আদায়ের সুযোগ নেই। তাছাড়া ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর, বাংলাদেশ প্রতিযোগিতা কমিশন এবং টিসিবি নিয়মিত বাজার মনিটরিং করছে।

বিজনেস আওয়ার/২৮ জানুয়ারি, ২০২০/এ

এই বিভাগের অন্যান্য খবর

উপরে