করোনাভাইরাস লাইভ আপডেট
বাংলাদেশ
আক্রান্ত
সুস্থ
মৃত্যু
৫৬
২৬
সূত্র:আইইডিসিআর
বিশ্বজুড়ে
দেশ
আক্রান্ত
মৃত্যু
১৮০
৯৮১২২১
৫০২৩০
সূত্র: জনস হপকিন্স ইউনিভার্সিটি ও অন্যান্য।

ঢাকা, শুক্রবার, ৩ এপ্রিল ২০২০, ২০ চৈত্র ১৪২৬


খাদ্যে সমান সংখ্যক কোম্পানির মুনাফা উত্থান-পতন

১০:৪২এএম, ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০

বিজনেস আওয়ার প্রতিবেদক : শেয়ারবাজারে খাদ্য ও আনুষঙ্গিক খাতে তালিকাভুক্ত কোম্পানিগুলোর সমান সংখ্যক অর্থাৎ ৪৩ শতাংশ করে প্রতিষ্ঠানের শেয়ারপ্রতি মুনাফা (ইপিএস) বেড়েছে এবং লোকসান হয়েছ। আগের অর্থবছরের একই সময়ের তুলনায় চলতি অর্থবছরের ৬ মাসে (জুলাই-ডিসেম্বর ২০১৯) এই মুনাফা এবং লোকসান হয়েছে। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

জানা গেছে, খাদ্য ও আনুষঙ্গিক খাতে ১৭টি প্রতিষ্ঠান রয়েছে। এসব প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ১৪টি চলতি অর্থবছরের ৬ মাসের অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। এসব প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ৬টির বা ৪৩ শতাংশের ইপিএস বেড়েছে, ইপিএস কমেছে ২টির বা ১৪ শতাংশের এবং ৬টি বা ৪৩ শতাংশ প্রতিষ্ঠানের শেয়ারপ্রতি লোকসান হয়েছে।

ইপিএস সর্বোচ্চ বেড়েছে ফাইন ফুডস। কোম্পানিটির ইপিএস ২৪৬১ শতাংশ বেড়েছে, দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ১৯ শতাংশ ইপিএস বেড়েছে আরডি ফুডের এবং তৃতীয় সর্বোচ্চ ১৫ শতাংশ ইপিএস বেড়েছে গোল্ডেন হার্ভেস্ট এগ্রোর। এছাড়া ইপিএস সবচেয়ে কম অর্থাৎ ১ শতাংশ বেড়েছে এএমসিএলের (প্রাণ)।

চলতি অর্থবছরের ৬ মাসে ইপিএস কমেছে মাত্র দুইটি কোম্পানির। এর মাধ্য ন্যাশনাল টি’র ৭৬ শতাংশ এবং এপেক্স ফুডের ইপিএস ৪১ শতাংশ কমেছে।

এ সময়ে শেয়ারপ্রতি লোকসান হয়েছে ৬টির প্রতিষ্ঠানের। প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে ৪টির লোকসান বেড়েছে আর ২টির লোকসান কমেছে। লোকসান সবচেয়ে বেশি অর্থাৎ ১৪৪ শতাংশ বেড়েছে জেমিনি সী ফুডের। লোকসান সবচেয়ে কম ৩ শতাংশ বেড়েছে শ্যামপুর সুগারের। এসময়ে মেঘনা পেটের লোকসান ৭ শতাংশ এবং জিলবাংলা সুগারের লোকসান ২ শতাংশ কমছে।

যেসব কোম্পানির মুনাফা বেড়েছে :

যেসব কোম্পানির লোকসান হয়েছে :

যেসব কোম্পানির মুনাফা কমেছে :

বিজনেস আওয়ার/১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২০/এস

এই বিভাগের অন্যান্য খবর

মঙ্গলবার শেয়ারবাজারে ১৬ ব্যাংকের বিনিয়োগ
শেয়ারবাজারে ধীরে ধীরে ব্যাংকের বিনিয়োগ বাড়ছে

উপরে