স্পোর্টস ডেস্ক : দলে ছিলেন না লিওনেল মেসি, অ্যাঞ্জেল ডি মারিয়া ও সার্জিও অ্যাগুয়েরো। ম্যাচটাও ছিল প্রতিপক্ষের মাঠে। তারপরও জার্মানির কাছে হারেনি আর্জেন্টিনা। ২-২ গোলে স্বস্তির ড্র নিয়ে মাঠ ছাড়ে লাতিন আমেরিকান জায়ান্টরা।

ম্যাচের শুরুতে সের্গে জিনাব্রির গোলে এগিয়ে যায় জার্মানি। এরপর ব্যবধান দ্বিগুণ করেন কাই হাভার্টস। তারপরই জেগে উঠে লাতিন জায়ান্টরা। লুকাস আলারিও ব্যবধান কমান। এরপর ওকামপোসের গোলে ড্র নিয়ে মাঠ ছাড়ে অতিথিরা।

অথচ প্রতিপক্ষের মাঠে সেরা দল নিয়ে আসতে পারেন নি লিওনেল স্কালেনি। আর্জেন্টাইন কোচের সেরা একাদশ গড়তে বেশ বেগ পেতে হয়েছে। কারণ নিষেধাজ্ঞার ও ইনজুরিতে কয়েকজন তারকাই ছিলেন মাঠের বাইরে। তারপরও নতুন চেহারার দলটি মন্দ খেলেনি।

এরমধ্যে জার্মানি শুরুটা যেভাবে করেছিল, মনে হচ্ছিল বড় ব্যবধানেই দল জিতবে। খেলার ১৫তম মিনিটে দলকে এগিয়ে দেন জিনাব্রি। যিনি অক্টোবরেই চ্যাম্পিয়ন্স লিগে টটেনহ্যাম হটস্পারের বিপক্ষে বায়ার্ন মিউনিখের হয়ে একাই করেছিলেন চার গোল।

খেলার ২২তম মিনিটে আরও এগিয়ে যায় জার্মানি। মার্কোস রোহোর ভুলে বল পেয়ে যান লুকাস ক্লোসতামান। তিনি পাস দেন জিনাব্রিকে। তারপরই বল পেয়ে যান কাই হাভার্টসকে। নিশানা খুঁজে নিতে ভুল করেন নি তিনি। এটিই জার্মানির হয়ে তার প্রথম গোল।

তারপর প্রথমার্ধেই আরও এগিয়ে যেতে পারতো জার্মানরা। যদিও ফিনিশিংয়ের অভাবে উল্লাসে মেতে উঠা হয়নি সাবেক বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের।

৬৬তম মিনিটে এসে ব্যবধান কমায় আর্জেন্টিনা। মার্কোস আকুনার ভাসানো ক্রস ডি-বক্সে ফাঁকায় পেয়ে যান লুকাস আলারিও। লাফিয়ে উঠে শুধু মাথাটা ছুঁইয়ে দেন লুকাস আলারিও (১-২)।

খেলার ৮৫তম মিনিটে এসে সমতা ফেরায় ১৯৮৬ সালের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা। গোলদাতা ওকামপোস। আনন্দে মেতে উঠে আর্জেন্টাইন সমর্থকরা। সেরা তারকা মেসিকে ছাড়া এমন ড্র, জয়ের স্বস্তিই যেন এনে দিয়েছে!

বিজনেস আওয়ার/১০ অক্টোবর, ২০১৯/এ