বিজনেস আওয়ার প্রতিবেদকঃ পরিবেশ অধিদপ্তর ঢাকা ও এর আশপাশের পাঁচ জেলায় ৬২ শতাংশের বেশি অবৈধ ইটভাটা বন্ধ করেছে। কিন্তু এরপরও ঢাকা শহরের বায়ু মানের তেমন উন্নতি হয়নি। গতকাল রোববারও দিনের বেশির ভাগ সময় বিশ্বের দূষিত বায়ুর শহরগুলোর তালিকায় ঢাকার অবস্থান ছিল প্রথম। এ তথ্য বিশ্বের বায়ু মান পর্যবেক্ষণকারী প্রতিষ্ঠান এয়ার ভিজ্যুয়ালের। প্রতিষ্ঠানটি ২৪ ঘণ্টা ধরে বিশ্বের ৯৫টি বড় শহরের বায়ুর মান পর্যবেক্ষণ করে থাকে।

শুধু ঢাকা শহর নয়, পরিবেশ অধিদপ্তর থেকে ১২টি বড় শহরের বায়ুর মান পর্যবেক্ষণে পাওয়া চিত্রও বেশ উদ্বেগজনক। সরকারের এই সংস্থা বায়ুর মান পর্যবেক্ষণের তথ্য এক দিন পরপর দেয়। গত শনিবার ঢাকা, গাজীপুর, বরিশাল, রংপুর, ময়মনসিংহ, নরসিংদী শহরের বায়ুর মান খুবই অস্বাস্থ্যকর ছিল। আর নারায়ণগঞ্জ ও সাভারের বায়ুর মান ছিল তার চেয়েও খারাপ, মারাত্মক অস্বাস্থ্যকর। চট্টগ্রাম, খুলনা, রাজশাহী, কুমিল্লা শহরের বায়ুর মান ছিল অস্বাস্থ্যকর। অর্থাৎ কোনো শহরের বায়ুর মানই ভালো ছিল না। কিন্তু বছরখানেক আগেও ঢাকা, গাজীপুর ও নারায়ণগঞ্জ ছাড়া বাকি শহরগুলোর বায়ুর মান শীতের এই সময়েও মাঝারি থেকে ভালো অবস্থায় ছিল। দিন দিন বেশির ভাগ বড় শহরের বায়ুর মান আরও খারাপ হচ্ছে।

পরিবেশ অধিদপ্তরের গত নভেম্বর মাসের হিসাবে দেশের ৩ হাজারের বেশি অবৈধ ইটভাটার মধ্যে এই ১২টি শহরে রয়েছে ১ হাজার ২৪৬টি। যার মধ্যে ঢাকা ও এর আশপাশের ৫ জেলায় রয়েছে ৫৫৯টি। গত দেড় বছরে ঢাকাসহ সারা দেশে মাত্র ৭৩৭টি ইটভাটা বন্ধ করা হয়েছে। এখনো চালু থাকা ২ হাজার ২৬৩টি অবৈধ ইটভাটা দূষণ ছড়াচ্ছে।

অবশ্য উচ্চ আদালতের নির্দেশের পর পরিবেশ অধিদপ্তর থেকে ঢাকার চারপাশের অবৈধ ইটভাটাগুলোর বিরুদ্ধে অভিযান যতটা গুরুত্ব পাচ্ছে, ঢাকার বাইরেরগুলো ততটা পাচ্ছে না বলে মনে করছেন পরিবেশবাদীরা। তাঁরা বলছেন, বায়ুদূষণের জন্য দায়ী অবৈধ ইটভাটার পাশাপাশি অন্য বিষয়গুলোকেও গুরুত্ব দিতে হবে।

বিজনেস আওয়ার/১৩ জানুয়ারি,২০২০/আরআই